৬ অক্টোবর ২০২২, বৃহস্পতিবার

শেষ হলো আগুয়েরো-ভাইনালদামের ইংলিশ সামার

- Advertisement -

সাদিও মানের জোড়া গোলে ক্রিস্টাল প্যালেসকে ২-০ গোলে হারিয়ে, আগামী মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নিশ্চিত করেছে লিভারপুল, লিগ শেষে করেছে টেবিলের তিন থেকে। অ্যাস্টন ভিলার সাথে ২-১ গোলে হেরেও শেষ চার নিশ্চিত করেছে চেলসি আর সবচেয়ে বেশী সময় সেরা চারে থেকেও শেষ দিনে টটেনহ্যামের সাথে ২-৪ গোলে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বঞ্চিত হয়েছে লেস্টার সিটি।

ছবি: টুইটার

লিভারপুলের সমীকরণ ছিলে জলবৎ তরলৎ; ম্যাচ জেতো, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের টিকিটি কাটো। টিকিট কাটার কাউন্টারে লাইনের প্রথমেই ছিলেন চলতি মৌসুমে নিজেকে হারিয়ে খোঁজা সাদিও মানে, ফর্মে ফিরেছেন সময়মতো। দুই হাফে দুই গোল করে লিভারপুলের জয় আর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ টিকিটি দুটোই নিশ্চিত করেন সেনেগালিজ স্ট্রাইকার।

ছবি: টুইটার

অ্যানফিল্ডে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে খেলেই  ৫ বছরের লিভারপুল ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন ডাচ মিডফিল্ডার জর্জিনিও ভাইনালদাম। অসম্ভব পরিশ্রমী মিডফিল্ডারের লিভারপুলতো বটেই, পুরো ক্যারিয়ারের হাইলাটস হয়ে আছে অ্যানফিল্ডে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে বার্সালোনার বিপক্ষে জোড়া গোল। লিভারপুলের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এবং প্রিমিয়ার লিগ জেতার মিশনে অলরেড মিডফিল্ডের সবচেয়ে বড় “ওয়ার্কিং হর্স” ছিলেন ভাইনালদাম। নতুন চ্যালেঞ্জ নিতেই লিভারপুলের সাথে আর চুক্তি নবায়ন করেননি জিনি ভাইনালদাম।

২০১৬ সালের ২২ জুলাই নিউক্যাসল ইউনাইটেড থেকে ২৩ মিলিয়ন পাউন্ড ট্রান্সফার ফিতে লিভারপুলে যোগ দিয়েছিলেন জিনি ভাইনালদাম। খেলেছেন ১৭৮ ম্যাচ, গোল ১৬টি। শেষ লিগ ম্যাচের শেষে গার্ড অব অনার দিয়ে প্রিয় “জিনি”কে বিদায় বলেছে টিম মেইট আর ভক্তরা। বিদায়ে আপ্লুত ভাইনালদাম লিখেছেন, “যে ক্লাবেই যাই, যে দেশেই খেলি; আমি সারাজীবন লিভারপুলেরই  ভক্ত থাকবো”

ছবি: টুইটার

ভাইনালদামের মতোই ইংলিশ লিগের শেষ দিনে ইংল্যান্ডের ফুটবলকে বিদায় বলেছেন আরেক কিংবদন্তী সার্জিও আগুয়েরো। ম্যানচেস্টার সিটির জার্সিতে সর্ব্বোচ্চ ২৬০ (প্রিমিয়ার লিগে ১৮৪) গোল করা আগুয়েরো কেবল সিটির নয়, এক ক্লাবের হয়ে সর্ব্বোচ্চ গোলের ইংলিশ রেকর্ডও ভেঙ্গেছেন, ওয়েইন রুনিকে পেছনে ফেলেছেন।

দশ বছর আগে নীল ম্যানচেস্টারের যোগ দেয়া আর্জেন্টাইন হিটম্যানের শুরু আর শেষটাও রাঙ্গিয়ে গেছে এক অবিশ্বাস্য যোগসূত্রে। ম্যান সিটি ক্যারিয়ারের প্রথম ম্যাচেই বদলি নেমে জোড়া গোল করেছিলেন আগুয়েরো, শেষ ম্যাচেও নেমেছিলেন বদলি হিসেবেই, এবারও জোড়া পূর্ণ করেই মাঠ ছেড়েছেন!! সাথে পাঁচটা প্রিমিয়ার লিগ ট্রফি।

ছবি: টুইটার

আগুয়েরোর পরবর্তী গন্তব্য কোথায় কিংবা কোন দল, সেটা নিয়ে নানারকম আলোচনা থাকলেও বার্সেলোনার নামটাই সবচেয়ে বেশি শোনা যাচ্ছে। তবে তিনি যেখানেই যান না কেনো, ম্যানচেস্টার সিটির সাথে কাটানো দশটা বছর হয়ে থাকবে তার ক্যারিয়ারের গোল্ডেন টাইম। বিদায় বেলায় সেই সোনালি সময়গুলোর কথা ভেবেই হয়তো চোখের জলের চেয়ে হাসিটাই বেশি ছিল আগুয়েরোর মুখে।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img