১৭ জুলাই ২০২৪, বুধবার

বাংলাদেশকে জিততে হলে গড়তে হবে রান তাড়ার নতুন রেকর্ড

- Advertisement -

প্রথম ইনিংসে ৫৭ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা ও কামিন্দু মেন্ডিসের ২০২ রানের জুটিতে ২৮০ রানের সংগ্রহ পেয়েছিল শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় ইনিংসেও একই গল্প, বাকি ব্যাটাররা যেখানে যাওয়া আসার মিছিলে ব্যস্ত তখন আবারও জুটি গড়লেন তারা দুজন। তাতেই সিলেট টেস্টে জয়ের স্বপ্ন দেখছে শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় ইনিংস শেষে ৫১০ রানের লিড নিয়েছে তারা।

বাংলাদেশকে জিততে হলে গড়তে হবে রান তাড়ার নতুন রেকর্ড। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৪১৮ রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড গড়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

৫ উইকেট হারিয়ে ১১৯ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেছিল শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয়দিন শেষের দিকে ‘নাইটওয়াচম্যান’ হিসেবে নামা বিশ্ব ফার্নান্দো এদিন ফিরেছেন দ্রুত। এরপর কামিন্দু মেন্ডিসকে সাথে নিয়ে জুটি গড়ার দিকে মনোযোগ দেন ধনাঞ্জয়া। খালেদ আহমেদ-নাহিদ রানারা বোলিংয়ে আসলেই আক্রমণ করেছেন তারা। বাজে বল পেলেই বাউন্ডারিতে রুপান্তর করেছেন ধনাঞ্জয়া-কামিন্দু জুটি।

এক টেস্টের দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি করেছেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা ও কামিন্দু মেন্ডিস

৮২ বলে ফিফটি পূর্ণ করেন লঙ্কান অধিনায়ক। পরের ৫০ রান করতে ঠিক ৮২ খেলেছেন ধনাঞ্জয়া। যদিও নব্বয়ের ঘরে ভাগ্যের ছোঁয়া পেয়েছিলেন তিনি। তাইজুল ইসলামের বল তার গ্লাভসে লাগলেও বুঝতে পারেননি লিটন কুমার দাশ। প্রথম ইনিংসেও সেঞ্চুরি করেছিলেন ধনাঞ্জয়া। ১৭৯ বলে ১০৮ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন লঙ্কান অধিনায়ক।

কামিন্দু মেন্ডিস শুরুতে দেখেশুনে খেলেছেন। এরপর সময় যত গড়িয়েছে সাবলীল ব্যাটিং করেছেন তিনি। টাইগার বোলারদের বাজে বল পেলেই বাউন্ডারি মেরেছেন বাঁহাতি এ ব্যাটার। ১৭১ বলে টেস্ট ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পেয়ে যান তিনি। তাইজুলের বলে শেষ ব্যাটার হিসেবে আউট হওয়ার আগে ২৩৭ বলে করেছেন ১৬৪ রান।

এক টেস্টের দুই ইনিংসে সেঞ্চুরির মধ্য দিয়ে ১৯৭৪ সালে গ্রেগ চ্যাপেল-ইয়ান চ্যাপেল ও মিসবাহ-উল-হক-আজহার আলীর করা এক টেস্টের উভয় ইনিংসে সেঞ্চুরির রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন ধনাঞ্জয়া-কামিন্দু।

বাংলাদেশের হয়ে ২৯ ওভারে ৭৪ রান দিয়ে ৪ উইকেট শিকার করেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। দুটি করে উইকেট নিয়েছেন নাহিদ রানা ও তাইজুল ইসলাম।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img