২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

সকল সমীকরণকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে প্লে অফে সাকিবের কলকাতা

- Advertisement -

চেক রিপাবলিক, আন্ধ্রা, রোমানিয়া, শ্রীলঙ্কা, বালখ লেজেন্ডস- পাঠক ভাবছেন এরা কারা? এরাই হতে পারে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা। কারণ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে ১৭১ রান বা এর বেশি রানের ব্যবধানে জয় পেয়েছে এই চারটি দলই। এবং কলকাতা নাইট রাইডার্সকে টপকে আইপিএলের শেষ চারে উঠতে চাইলে মুম্বাইয়েরও কমপক্ষে ১৭১ রানের ব্যবধানে হারাতে হবে হায়দ্রাবাদকে।

এখন এটি যদি আপনি ‘অসম্ভব’ বলে মনে করেন, তাহলে বলতে হয় কোন হিসাব, কোন সমীকরণ, কোন যদি-কিন্তু-তবের কোন সুযোগ আর রাখেনি কলকাতা নাইট রাইডার্স।  রাজস্থান রয়েলসকে ৮৬ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে সরাসরিই শেষ চারে চলে গেছে সাকিবের দল। পাঞ্জাব কিংস তো নয়ই, এখন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সও তাঁদের শেষ ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে এই অস্বাভাবিক বড় ব্যবধানে না জিতলে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না কলকাতা ও শেষ চারের মধ্যে।

কলকাতা বোলারদের সম্মিলিত নৈপুণ্য ও রাজস্থান ব্যাটসম্যানদের একের পর এক বাজে শটই রাজস্থানের এই ধ্বংসস্তুপের কারণ। প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই যশস্বী জায়সওয়ালকে বোল্ড করে ধ্বংসযজ্ঞের সূচনাটি করেন সাকিব আল হাসান। এরপর আর কখনোই দাঁড়াতে পারেনি রাজস্থান। ভয়াবহ ব্যাটিং বিপর্যয়ের শিকার হয়ে প্রথম ৪ ওভারেই ৪ উইকেট হারায় তারা, রান আসে মাত্র ১৩। শিভাম দুবে ও গ্লেন ফিলিপস বিপর্যয় সামাল দেওয়ার চেষ্টা করলেও লাভ হয়নি; দুজনকেই বোল্ড করেন কলকাতার আরেক ‘শিভাম’, পেসার শিভাম মাভি। রাহুল তেওয়াটিয়ার ৩৬ বলে ৪৪ রানের একার লড়াই সান্ত্বনা ছাড়া আর কিছু দিতে পারবে না রাজস্থান শিবিরে।

কলকাতার পক্ষে ৪ উইকেট নেন পেসার শিভাম মাভি ও ৩ উইকেট নেন লকি ফার্গুসন। একটি উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি আগের ম্যাচের মত এই ম্যাচেও চেতন সাকারিয়াকে চমৎকার একটি রানআউট করেছেন সাকিব আল হাসান।

এর আগে টসে হেরে ব্যাটিং করতে নেমেও নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭১ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড়া করায় কলকাতা। ৭৯ রানের ওপেনিং জুটি গড়ার পর ব্যক্তিগত ৩৮ রানে ভেঙ্কটেশ আইয়ার বিদায় নেন, তবে আরেক ওপেনার শুভমান গিল তুলে নেন ফিফটি। ৫ বলে ১২ রান করে নিতিশ রানা বিদায় নেওয়ার পর রাহুল ত্রিপাঠির সাথেও ৪১ রানের জুটি গড়েন গিল। ক্রিস মরিসের বলে আউট হওয়ার আগে গিল করেন ৪৪ বলে ৫৬, ত্রিপাঠি খেলেন ১৪ বলে ২১ রানের ‘ক্যামিও’। দীনেশ কার্তিক ও ইয়ন মরগানের ব্যাটে ১৭০ পার করে কেকেআরের ইনিংস।

শুভমান গিল করেছেন ফিফটি

রাজস্থানের পক্ষে আজও ভালো করতে পারেননি মুস্তাফিজুর রহমান। ৪ ওভারে ৩১ রান দিয়ে থেকেছেন উইকেটশূন্য।

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img