৬ অক্টোবর ২০২২, বৃহস্পতিবার

সবচেয়ে খারাপ পারফরম্যান্সটিই শেষের জন্য জমিয়ে রেখেছিল বাংলাদেশ

- Advertisement -

আগের ম্যাচে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ৮৪ রানে অলআউট হওয়ার দিনও কি এতোটা হতোদ্যম, এতোটা নেতিবাচক শরীরী ভাষা ছিলো বাংলাদেশের? প্রশ্ন তোলার মতো ব্যাপার। কারণ আজ বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের দেখে মনে হচ্ছিলো কোনমতে বিশ্বকাপ শেষ করে ফিরতি বিমানে দেশে ফিরে এসে জাতীয় লিগের ম্যাচ ও পাকিস্তান সিরিজের প্রস্তুতিতে মনোনিবেশ করার জন্যই বোধহয় তাদের তাড়াহুড়া।

দুবাইয়ের পিচ এই বিশ্বকাপের তিনটি ভেন্যুর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ‘সহজ’। সেই সহজ পিচে স্টার্ক-হ্যাজলউড-জাম্পাদের খেলা বাংলাদেশের জন্য যেন অসম্ভব হয়ে গেছিলো। যে অস্ট্রেলিয়াকে কয়দিন আগে মিরপুরে হারালো বাংলাদেশ, মাত্র ৭৩ রানে অলআউট হয়ে বিশ্বকাপের সবচেয়ে খারাপ পারফরম্যান্সটি শেষ ম্যাচেই ‘উপহার’ দিলো তারা।

প্রথম সাত ওভারে বাংলাদেশ হারিয়েছে ৫ উইকেট। চতুর্থ ও ষষ্ঠ ওভার বাদে প্রতিটি ওভারে পড়েছে উইকেট। প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই মিচেল স্টার্কের ইয়র্কারে বোল্ড হন লিটন দাস। দ্বিতীয় ওভারে সৌম্য সরকার একটি বাউন্ডারি হাঁকিয়ে দুইবল পরে হয়েছেন হ্যাজলউডের শিকার, একটু আশা দেখানো নাইম শেখকেও আউট করেছেন হ্যাজলউড। ম্যাক্সওয়েলের মতো অনিয়মিত স্পিনারকে পর্যন্ত সামলাতে পারেননি মুশফিকুর রহিম; আউট হয়েছেন ১ রানে। আফিফ অ্যাডাম জাম্পার বলে হয়েছেন ক্লাসিক লেগস্পিনারদের ডেলিভারিতে।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও শামীম পাটোয়ারীর ২৯ রানের জুটি যেন কয়লাখনিতে একটুকরো উজ্জ্বল চকমকি পাথর হিসেবে দেখা দিয়েছিলো। তবে লেগস্পিনার অ্যাডাম জাম্পার একটি দুর্দান্ত ডেলিভারিতে সেই আশার প্রদীপটিও নিভে যায় বাংলাদেশের জন্য। শামীম আউট হন ১৯ রান করে জাম্পা সব মিলিয়ে নিয়েছেন ১৯ রানে ৫ উইকেট।

খারাপ টুর্নামেন্ট বাংলাদেশ এই প্রথম কাটাচ্ছেনা, তবে এতোটা ‘আত্মাহীন’ বাংলাদেশকে শেষ কবে লেগেছিলো তা গবেষণার বিষয়।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ বাংলাদেশ ১৫ ওভারে ৭৩/১০ ( শামীম ১৯, নাইম ১৭; জাম্পা ৫/১৯, হ্যাজলউড ২/৮)

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img