NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার

সুইডেনকে হারিয়েছে ইউক্রেন; কোয়ার্টারে প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড

- Advertisement -

সুইডেনকে ২-১ গোলে হারিয়ে ইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালে ইউক্রেন। ১২১ তম মিনিটে জয়সূচক গোল করেন ফরোয়ার্ড আর্টেম ডোভিক। শেষ দল হিসেবে কোয়ার্টার নিশ্চিত করা ইউক্রেনের সামনে এখন রয়েছে জার্মানিকে হারিয়ে আসা ইংল্যান্ড।

দুই হাজার বারোর পর আবারও ইউরোতে বুধবার মুখোমুখি হয়েছিল সুইডেন ও ইউক্রেন। স্কটল্যান্ডের গ্লসগোতে একে অপরের বিরুদ্ধে খেলতে নামে দুইদল।ইউরোতে একের পর এক শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচের পর সুইডেন-ইউক্রেন ম্যাচ স্বস্তিতে শ্বাস নিয়ে দেখা যাবে এমন ভাবা লোকের সংখ্যা হয়তো কম ছিলনা, কিন্তু এমন লোকেদের চিন্তা যে খুব একটা সফল তা ভাবারও কোন কারণ নাই।

এই ম্যাচেও প্রথমার্ধে গোল হয়েছে, বিরতিতে যাওয়ার আগে অপরপক্ষ তা শোধও দিয়েছে। ৮ বছর আগের ম্যাচে সুইডেনের প্রথম দেয়া গোল টপকে ম্যাচ জিতেছিলো ইউক্রেন। এদিন ঘটেছে এর উল্টোটা, সুইডেনের আগেই গোলের দেখা পেয়েছে ইউক্রেন। অধিনায়ক আন্দ্রেই ইয়ারমোলেংকো বাড়ানো বল বক্সের মধ্যে একা দাঁড়িয়ে থাকা আলেক্সান্ডার জিনচেনককোর পায়ে গেলে ম্যাচের প্রথম গোল আসে। ওই ১ গোলের লিড নিয়েই বিরতিতে যেতে পারতো ইউক্রেনিয়ানরা। তা হতে দেয়নি সুইডিশ জুটি আলেক্সান্ডার আইজ্যাক আর এমিল ফোর্বসবার্গ, প্রথমার্ধ শেষের মিনিট দুয়েক আগেই ফোর্বসবার্গ গোল করে সমতায় ফেরান সুইডেনকে।

প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে আর গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই। তবে, মাত্র ২গোলের এই ম্যাচে দুই দল মিলিয়ে গোল পোস্টেই মেরেছে ৩বার। দুইদলের মধ্যে তুলনামূলক বেশি আক্রমনাত্মক খেলা সুইডেনই ক্রসবারে মেরেছে ২বার আর ইউক্রেনের বারে লেগেছে একটি শট। প্রথমার্ধের সুইডেনের গোলের কারিগর আইজ্যাক আর ফোর্বসবার্গ পুরো ৯০ মিনিটই তটস্থ রেখেছে ইউক্রেনিয়ানদের। ইউক্রেন রক্ষণও তাদের সামলেছে ভালোই, পেতে দেয়নি আর কোনো গোল। ৮৯ মিনিটে সুইডেনের শেষ আক্রমণ রুখে দেন ইউক্রেন ফুল ব্যাক ইলিয়া যাবারেনি, শেষ ১০ মিনিটে দুই দলই গোল দেয়ার চেয়ে আটকানোয় মন দেয় বেশি। ফলে ১-১ সমতায়ই শেষ হয় নির্ধারিত ৯০ মিনিট।

নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা সমানে সমান শেষ হলে খেলা গড়ায় অতিরিক্ত ৩০মিনিটে। নক আউট ম্যাচের চাপ সামলিয়ে এবং কোয়ার্টার ফাইনালের হাতছানি উপেক্ষা করে রিস্কি ফুটবল খেলেনি কোনো দলই। অতিরিক্ত সময়ের প্রথমার্ধেও তাই আসেনি কোন গোল।

তবে, সুইডেনের সর্বনাশ হয় ম্যাচের ১০০তম মিনিটে। ইউক্রেন ফরোয়ার্ড আর্টেম বিসেইডিনকে মারাত্মক ফাউল করে মাঠছাড়া করেন সুইডিশ সেন্টার-ব্যাক মার্কাস ড্যানিয়েলশন; ফাউল করে পার পেয়ে যাননি তিনিও, নিজে লাল কার্ড দেখে সুইডেনকে ১০ জনের দলে পরিণত করেন ড্যানিয়েলশন।

ইউক্রেনের হাতে সুইডেনের সর্বনাশে নিজেদের পৌষ মাস ডেকে আনার জন্য সময় ছিল মিনিট বিশেক। সেই কাজটি তারা করেছে ২০ মিনিটে যেয়েই। সবাই যখন টাই ব্রেকারের প্রস্তুতি নিচ্ছিলো তখনই হঠাৎ বাম দিক থেকে জিনচেনকোর ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে ইউক্রেনকে ইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালে নিয়ে যান ফরোয়ার্ড আর্টেম ডোভিক। ২-১ গোলে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয় সুইডেনের।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img