১৪ জুলাই ২০২৪, রবিবার

সুপার এইটের পথে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ

- Advertisement -

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইটে উঠতে হলে নেদারল্যান্ডসকে হারানোর কোন বিকল্প ছিল না। কিংস্টাউনে সাকিব আল হাসানের দুর্দান্ত ফিফটি ও মুস্তাফিজুর রহমান-রিশাদদের দারুণ বোলিংয়ে ডাচদের ২৫ রানে হারিয়েছে নাজমুল হোসেন শান্তর দল।

টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিতে একমুহুর্তও দেরি করেননি ডাচ অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস। দ্রুতই শান্ত ও লিটনকে ফিরিয়ে অধিনায়ককে সাফল্য এনে দেন আরিয়ান দত্ত। দুই উইকেট হারানোর পর জুটি গড়ার দিকে মনোযোগ দেন সাকিব ও তামিম। শুরুতে দুজনেই নিয়েছেন সময়। এরপর সময় যত গড়িয়েছে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেছেন দুজনই।

পল ফন মিকেরেনের বলে পুল করতে গিয়ে আউট হয়েছেন তামিম। তাতেই ভাঙে ৩২ বলে ৪৮ রানের জুটি। তামিম করেন ২৬ বলে ৩৫ রান। তামিম ফিরলেও দারুণ ব্যাটিং করেছেন সাকিব। ৩৮ বলে ফিফটি পূর্ণ করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৪৬ বলে ৯ বাউন্ডারিতে ৬৬ রান করে অপরাজিত ছিলেন সাকিব।

সাকিব আল হাসান ও তানজিদ হাসান তামিম করেছেন দুর্দান্ত ব্যাটিং

কিংস্টাউনের উইকেটে নতুন ব্যাটারদের জন্য ব্যাটিং করা বেশ কঠিন। উইকেটে আসার পর বেশ ভুগেছেন তাওহীদ হৃদয়। ১৫ বলে ৯ রান করে টিম প্রিঙ্গলের বলে বোল্ড হন তিনি।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ শুরুতে সময় নিয়েছেন। এরপর বেশ সাবলীল ব্যাটিং করেছেন রিয়াদ। দুটি করে বাউন্ডারি ও ছক্কা মেরে বড় ইনিংস খেলার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ফন মিকেরেনকে তুলে মারতে গিয়ে আউট হয়েছেন রিয়াদ। তার আগে ২১ বলে করেছেন ২৫ রান। শেষদিকে ৭ বলে ১৪ রানের ক্যামিও খেলেছেন জাকের আলী অনিক।

নেদারল্যান্ডসের হয়ে ৪ ওভারে ১৫ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন ফন মিকেরেন। ২ উইকেট শিকার করতে আরিয়ান দত্ত খরচ করেছেন ১৭ রান।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা মোটামুটি ভালোই করেছিল নেদারল্যান্ডস। টাইগার বোলারদের সাবলীলভাবে খেলেছেন মাইকেল লেভিট। তবে ডাচ এ ওপেনার ভয়ংকর হওয়ার আগেই তাকে ফিরিয়েছেন তাসকিন আহমেদ। আরেক ওপেনার ম্যাক্স ও’ডাউডকে ফেরান তানজিম হাসান সাকিব।

দারুণ বোলিং করেছেন মুস্তাফিজুর রহমান

দুই উইকেট হারানোর পর জুটি গড়ার দিকে মনোযোগ দেন সায়ব্রান্ড এঙ্গেলব্রেখট ও বিক্রমজিত সিং। দুজনের ৩১ বলে ৪২ রানের জুটিতে দারুণ ভিত পায় নেদারল্যান্ডস। বিক্রমজিতকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে ব্রেক থ্রু এনে দেন রিয়াদ। এক ওভারে জোড়া আঘাত হানেন রিশাদ হোসেন। এঙ্গেলব্রেখটের পর বাস ডি লিডিকেও ফেরান ডানহাতি এ স্পিনার।

শেষ চার ওভারে জয়ের জন্য ৪৪ রান প্রয়োজন ছিল নেদারল্যান্ডসের। ১৬তম ওভারে এসে মাত্র ১ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়ে ম্যাচ বাংলাদেশের দিকে আনেন মুস্তাফিজুর রহমান। পরের ওভারে এসে আবারও উইকেটের দেখা পান রিশাদ। ১৯তম ওভারে এসে আবারও দুর্দান্ত বল করেন ফিজ, খরচ করেন মাত্র ২ রান।

বাংলাদেশের হয়ে ৪ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন রিশাদ হোসেন। ২টি উইকেট শিকার করেছেন তাসকিন আহমেদ।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img