৬ ডিসেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

সেদিন কি হয়েছিলো হিমেনেজের!

- Advertisement -

ইংলিশ ক্লাব ওলভারহ্যাম্পটনের মেক্সিকান বংশোদ্ভূত ২৯ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড রাউল হিমেনেজ। গত নভেম্বরে আর্সেনালের বিপক্ষে এমিরেটসে খেলা ছিল ওলভসের। ম্যাচের ১৪ মিনিটে কর্নার থেকে আসা বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে সংঘর্ষ ঘটে আর্সেনালের সেন্টার ব্যাক ডেভিড লুইজের সাথে। সরাসরি মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হন হিমেনেজ এবং লুইজ। ব্রাজিলিয়ান তারকার আঘাত খুব একটা গুরুতর ছিল না, কিন্তু মাঠেই সংজ্ঞা হারান হিমেনেজ। মেডিকেল টিম এসে নেবুলাইজার প্রয়োগে জ্ঞান ফেরানোর চেষ্টা করে। কিন্তু অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হয়।

                                                       

হাসপাতালে নেওয়ার পথে ইন্টার্নাল ব্লিডিংয়ের আশঙ্কা করেন চিকিৎসকেরা। পরে জানা যায়, মাথার খুলিতে ফ্র‍্যাকচার ধরা পড়েছে। ব্লিডিং বন্ধে সার্জারি করা হয়েছিলো সেদিনই। ক্লাবটি একজন গুরুত্বপূর্ণ স্ট্রাইকারের অনুপস্থিতিতে বেশ ভুগেছে কয়েকটি ম্যাচ। ২৪ ম্যাচ থেকে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বাদশ স্থানে আছে তারা।

                                                     

তিন মাস পরে মাঠে ফিরছেন হিমেনেজ। তবে অনুশীলনের মাঠে, এখনো তাঁকে কড়া নজরদারিতে রাখছেন ফিটনেস প্রশিক্ষক এবং চিকিৎসকেরা। অনলাইন ম্যাগাজিন এস্তিলো ডিএফকে জানিয়েছেন তাঁর ফেরার কাহিনী। হ্যাঁ, বেঁচে ফেরাটা একেবারেই অনিশ্চিত ছিলো। হিমেনেজের মনেও পড়ে না কি ঘটেছিলো ইনজুরির সেই সময়টাতে। খুব সাবধানে চলাফেরা করতে হয়েছে এতোদিন। সর্বদা পাশে ছিলেন তাঁর প্রেমিকা। হাঁটাচলা এবং খাওয়াদাওয়া করতে সবচেয়ে বেশি বেগ পেতে হয়েছে তাঁকে। হিমেনেজের ফিরে আসায় খুশি ম্যানেজার নুনো এস্পেরিতো এবং তাঁর সতীর্থরা। এক সেকেন্ডের আঘাতে একজন ফুটবলারের ক্যারিয়ার, এমনকি জীবনও ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে। ১৯৩১ সালে সেল্টিকের গোলকিপার জন থমসন একইভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। এমন মর্মান্তিক পরিণতির নজির আরো অনেক আছে ফুটবল ইতিহাসে।

                                                     

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img