৬ ডিসেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

বারো বছর পর ইউরোর দ্বিতীয় রাউন্ডে নেদারল্যান্ডস

- Advertisement -
ডেনজেল ডামফ্রিজের সরাসরি অবদানে ২-০ তে জিতেছে নেদারল্যান্ডস। ১১মিনিটে মেমফিস ডিপাইয়ের পেনাল্টি থেকে গোল আসে। পেনাল্টি আদায় করে নেন ডেনজেল ডামফ্রিজ। ৬৭মিনিটে ডামফ্রিজ নিজেই ম্যাচের দ্বিতীয় গোল করলে জয় নিশ্চিত করে নেদারল্যান্ডস। এই জয়ে ২০০৮ এর পর আবার কোনো ইউরো আসরের পরের রাউন্ডে উঠলো নেদারল্যান্ডস।
ছবিঃ টুইটার
ছবিঃ টুইটার

বৃহস্পতিবার রাতে অস্ট্রিয়ার বিরুদ্ধে আমস্টারডামের ইয়োহান ক্রুয়েফ অ্য্যারেনায় আসরের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নামে নেদারল্যান্ডস। প্রথমার্ধে দুইদল বল পজিশনে সমানে সমান থাকলেও দুই গোলকিপারের কাউকেই পরিক্ষায় ফেলতে পারেনি কোনো দল। ম্যাচের ৮ মিনিটে স্তেফান ডি-ভ্রিজ অস্ট্রিয়ার বক্সে পরে গেলে পেনাল্টির আবেদন করে ডাচরা। রেফারি সেটায় সাড়া না দিলেও বল আসে ডেনজেল ডাম্ফ্রাইয়ের পায়ে; তাকে ফাউল করে বসেন রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার ডেভিড আলাবা। ভিএআর থেকে এবারে ডাচদের পেনাল্টি দেন রেফারি। সাথে হলুদ কার্ডের খাতায় নাম ওঠে আলাবার। ১১ মিনিটের পেনাল্টিতে ডানদিকের কোনায় জোড়ালো শটে গোল করেন নতুন বার্সা সাইনিং মেম্ফিস ডিপেই। পেনাল্টিতে ওয়াটফোর্ড গোলি ড্যানিয়েল বাখম্যান ডানদিকে দিকে ঝাঁপিয়েও নাগাল পাননি বলের। প্রথমার্ধে বেশিরভাগ সময়ই বল মাঝমাঠে ঘুরতে থাকে। তবে হাফটাইমের বাঁশি বাজার আগের ৫ মিনিটে গোটা তিনেক সুযোগ বানায় অরেঞ্জ রা। ভালো ফিনিশিংয়ের অভাবে যার একটিতেও হাত ছোঁয়াতে হয়নি বাখম্যান কে। ম্যাচের ৪০ মিনিটে ফাঁকা গোল পেয়েও বল উপর দিয়ে বাইরে পাঠান ডাচ নাম্বার১০ ডিপাই। পেনাল্টি থেকে পাওয়া গোলেই এগিয়ে থেকে প্রথম ৪৫ মিনিট শেষ করে নেদারল্যান্ডস।

বিরতির পর প্রথম বড় চান্স পেতে ডাচদের অপেক্ষা করতে হয় ১৬মিনিট পর্যন্ত। ৬১মিনিটে ডিপাইয়ের নেয়া কর্নার শট ভাউট ভেগহর্স্টের মাথা হয়ে আসে ডি ভ্রিজের পায়ে। ডি ভ্রিজ শট করলে চমতকার সেভে অস্ট্রিয়াকে বাঁচায় বাখম্যান। অবশ্য সেই স্বস্তি বেশিক্ষন থাকেনি। ৬মিনিট পরেই ডেনজেল ডামফ্রিজের ইউরো তে দ্বিতীয় গোলে স্বস্তির দ্বিতীয় গোল পায় ডাচরা। অস্ট্রিয়ান হাইলাইন ডিফেন্সের সুযোগে গোলি বাখম্যান কে একাই পেয়ে যান দুজন ডাচ খেলোয়াড়। গোলের সামনে এটাকার দানিয়েল মালেন নিজে শট না নিয়ে বল দেন ডামফ্রিজকে। আর তাতেই, অরেঞ্জ জার্সি গায়ে প্রথম ১৯ম্যাচ গোলহীন থাকার পর ইউরোর দুই ম্যাচেই দুই গোল পেলেন রাইটব্যাক ডামফ্রিজ।ম্যাচের ৮৫মিনিটে প্রথম বার হল্যান্ডের গোলে কোন বল রাখতে পারে অস্ট্রিয়া; বদলি খেলোয়াড করিম ওনিশিওর সে হেড বেশ ভালো ভাবেই তা আটকিয়ে দেয় ডাচ গোলকিপার মার্তেন স্তেকেলেনবার্গ। ম্যাচে আর কোনো সেভ করতে হয়নি তাকে। বাকি সময় আর কোনো গোল না হলে ২-০ গোলের দাপুটে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে নেদারল্যান্ডস।
ছবিঃ টুইটার
ছবিঃ টুইটার
নেদারল্যান্ডসের ৪৭ এর বদলে অস্ট্রিয়ার বল পজিশন ছিল ৫৩ শতাংশ। কর্নারের হিসেবেও ২-৫ ব্যাবধানে এগিয়ে ছিল অস্ট্রিয়া। তবে তারা গোলে শট নিতে পারে মোটে একটি। আর একারনেই একতরফা এক ম্যাচ জিতে নেয় নেদারল্যান্ডস। এ জয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই ইউরোর পরের রাউন্ড নিশ্চিত করলো তারা
- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img